সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৫:০৫ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বরিশালে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে ফল উৎসব পালন করেছে লাভ ফর ফ্রেন্ডস জিমাউফা মহিলা ও শিশু আইনি সহায়তা কেন্দ্রের উপদেষ্টা হলেন উদ্ভাবক মিজান একই স্থানে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সভা, ১৪৪ ধারা জারি সরকারী নির্দেশনা মানছে না যশোর মনিরামপুর কেশবপুর রোডের গনপরিবহন কতৃপক্ষ যে কারণে ৩ দিন সারাদেশে গ্যাসের সংকট থাকবে সারা দেশে গ্যাস সংকট থাকবে ৩ দিন আগামী ৩ দিনে আরও বাড়তে পারে বৃষ্টিপাত মানিকগঞ্জে চরাঞ্চলে কৃষি কাজে ব্যস্ত বেকার শ্রমিকরা কোপা শুরুর আগেই কলম্বিয়া দলে করোনার হানা ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে যা বললেন বাইডেন ৩৮ স্ত্রী, ৮৯ সন্তান! মারা গেলেন বিশ্বের বৃহত্তম পরিবারের কর্তা নকল গয়না নিয়ে মারামারি, কনেকে তালাক, জরিমানা দিয়ে রক্ষা বরপক্ষের! আজ ৫ জুন, বিশ্ব পরিবেশ দিবস। বরিশাল অনলাইন সাংবাদিক পরিষদের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল সম্পন্ন বরিশাল শহরে অপরাধ করলে কাউকে বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেওয়া হবেনা। ত্রাস রাসেল মোল্লা গ্রেফতারে এলাকায় স্বস্তি ফিরেছে কুষ্টিয়ায় চাঁদা না পাওয়ায় কাউন্সিলর কর্তৃক রিপনকে ছুরিকাঘাত, আগ্নেয়াস্ত্র ঠেকিয়ে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় অভিযোগ উজিরপুর মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন, বিক্ষোভ কুষ্টিয়া ইবি থানায় ওপেন হাউজডে অনুষ্ঠানে নবাগত পুলিশ সুপার খাইরুল আলম আগামীকাল পবিত্র শবে মেরাজ
মানিকগঞ্জে চরাঞ্চলে কৃষি কাজে ব্যস্ত বেকার শ্রমিকরা

মানিকগঞ্জে চরাঞ্চলে কৃষি কাজে ব্যস্ত বেকার শ্রমিকরা

করোনার কারণে বেকার হয়ে পড়া মানিকগঞ্জের চরাঞ্চলের শ্রমিকরা কর্ম ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। এখন বাদামের ভরা মৌসম হওয়ায় শ্রমিকের চাহিদা বেড়েছে কয়েকগুণ। কাজ না থাকায় দীর্ঘ সময় যারা বেকার হয়ে অলস সময় কাটিয়েছেন তারা এখন বাদাম নিয়ে মহাব্যস্ত। কেউ জমি থেকে বাদাম তুলছেন কেউ পরিস্কার করে বস্তায় ভরছেন কেউবা হাটে বাজারে নেওয়ার জন্য ব্যবস্থা করছেন।

নারী পুরুষ সমানতালে কাজে করে যাচ্ছেন। করোনার কারণে বছরজুরে চরাঞ্চলের শ্রমিকরা বেকার হয়ে দুঃসময় পর করেছেন। দেশের বিভিন্ন স্থানে তারা কলকারখানা, পরিবহন শ্রমিক, গার্মেন্টসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন বর্তমানে কোথাও কাজের চাহিদা নেই। মানিকগঞ্জের চরাঞ্চলের কৃষিকাজ তাদের বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি দিয়েছে।

হরিরামপুরের চরে বাদাম ক্ষেতে কাজ করতে আসা ফরিদপুরের নিজাম, হবি, মালেক সহ অনেকে বলেন, করোনার কারণে কোন কাজ নেই বাদাম খেতে কাজ করে ডাল ভাত খেয়ে বেঁচে আছি। এছাড়া ভালো ফলন হওয়ায় কৃষকরাও খুশি।
আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় মানিকগঞ্জের হরিরামপুর, দৌলতপুর ও শিবালয় উপজেলার চরাঞ্চলে এবার বাদামের বাম্পার ফলন হয়েছে। আর এই বাদাম উত্তোলনে কৃষকের অতিরিক্ত শ্রমিকের প্রয়োজন হচ্ছে। নদীতে পানি বাড়ছে বর্ষার আগেই বাদাম উত্তলন করতে হবে। এ কারণে শ্রমিকদের মুজুরী ও কদর বেড়েছে।

বাদাম চাষী আব্দুল কাদের বলেন, ১৫ বছর যাবৎ বাদাম চাষের সাথে আছি। খরা আর বন্যায় ক্ষতি না হলে বাদাম চাষে বেশি লাভ। তিনি আরোও বলেন জমি ঠিকঠাক করে একবার বীজ বপন করা আর শেষে উত্তোলন করা। অন্য ফসলের মতো নিরানী কুরানী নেই। প্রতি বিঘায় ৭ হাজার টাকার মতো খরচ হয়। ভালো বাদাম হলে ১২/১৪ হাজার টাকা বিক্রি করা যায়। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. শাহজাহান আলী বিশ্বাস বলেন বেলে-দোঁআশ মাটি বাদাম চাষের জন্য বেশ উপযোগী। যে কারণে জেলার চরাঞ্চলে বাদামের চাষ হয় বেশি। চলতি বছরে এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বাদাম চাষ বেশি হয়েছে। অনুকূল আবহাওয়ায় এবার বাদামের বাম্পার ফলন হওয়ায় বাদাম চাষিরা বেশ লাভবান।

 78 total views,  2 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2018 doinikjonotarkhobor