বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৪:০৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বিরোধীদের কঠোর হাতে দমন করার দাবি। চট্টগ্রামে জাল এনআইডি-সনদ চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার। তথ্য গোপন করে বিয়ে: চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ নেতার মামলায় নারী কারাগারে। কর্ণফুলীতে দুটি তক্ষক উদ্ধার। চট্টগ্রামে তক্ষকসহ একজন গ্রেপ্তার। চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের ৫৪ সদস্য পুরস্কৃত। ওয়ার্ল্ডভিশন বাংলাদেশ উদ্যোগে হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরন। বদলগাছী থানা১০দিনের মাথায় নাজমুল হত‍্যার উদীয়মান গ‍্যাং উদঘাটনে সফল। নারীর ফাঁদে মুক্তি পন না পেয়ে লাশ। সুনামগঞ্জ পৌরসভায় ১৭কোটি টাকা ব্যয়ে তিনতলা বিশিষ্ঠ পৌর পানি শোধনাগারের উদ্বোধন-পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান কুষ্টিয়ায় সরকারী চাল আত্মসাতের অভিযোগে চেয়ারম্যান কারাগারে কুষ্টিয়া জেলা কৃষক লীগের আনন্দ মিছিল ও বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ ধান কুড়ানোয় মেতেছে কুষ্টিয়ার গ্রামীন শিশুরা বদলগাছীর নাজমুল যে কারনে – যেভাবে খুন হয়। বদলগাছীতে আদিবাসীর ভাঁসমান লাশ উদ্ধার। বদলগাছীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড, শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি। প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। লালঘাঁট সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ের সভাপতি জামাল উদ্দিন জামাল। যশোর মণিরামপুর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মজিদ গাজীর ইন্তেকাল কুষ্টিয়া খোকসায় দরিদ্রদের মাঝে বিনামূল্যে সেলাই মেশিন ও টিউবওয়েল বিতরণ কুষ্টিয়া পৌর কাউন্সিলর শাহীন উদ্দিনের নির্বাচনী প্রচারণা সভায় বক্তারা ছাতকে আদা ও হলুদ চাষীর টাকা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার পেটে
মুসলমানের সাপ্তাহিক ঈদ ও ফজিলতময় দিন শুক্রবার

মুসলমানের সাপ্তাহিক ঈদ ও ফজিলতময় দিন শুক্রবার

আবদুল্লাহ আল মামুন খুলনা বিভাগীয় প্রতিনিধি

শুক্রবার জুম্মার দিনের গুরুত্বপুর্ন ফজিলত। পবিত্র কোরআন শরিফের ২৮ নং পারার সুরা জুম,আ ৯ নং আয়াতে আল্লাহ পাক বলেন হে ঈমানদারগণ যখন জুম্মার নামাজের আযান হয় তখন তোমরা দুনিয়ার কাজ কর্ম দোকান পাট বন্ধ করে আল্লাহর স্বরণে ব্যাস্ত হও এটাই তোমাদের জন্য উত্তম,যদি তোমরা তা বুঝ।

যে ব্যাক্তি জুমার দিন ফরজ গোসলের মত গোসল করে প্রথম দিকে মসজিদে হাজির হয়, সে যেন একটি উট কুরবানী করল, দ্বিতীয় সময়ে যে ব্যাক্তি মসজিদে প্রবেশ করে সে যেন একটি গরু কুরবানী করল, তৃতীয় সময়ে যে ব্যাক্তি মসজিদে প্রবেশ করল সে যেন একটি ছাগল কুরবানী করল। অতঃপর চতুর্থ সময়ে যে ব্যাক্তি মসজিদে গেল সে যেন একটি মুরগী কুরবানী করল। আর পঞ্চম সময়ে যে ব্যাক্তি মসজিদে প্রবেশ করল সে যেন একটি ডিম কুরবানী করল। অতঃপর ইমাম যখন মিম্বরে বসে গেলেন খুৎবার জন্য, তখন ফেরেশতারা লেখা বন্ধ করে খুৎবা শুনতে বসে যায়।” (বুখারীঃ ৮৮১, ইফা ৮৩৭, আধুনিক ৮৩০)

জুমার দিনের আদব যারা রক্ষা করে তাদের দশ দিনের গুনাহ মাফ করে দেওয়া হয়। রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন,

‘যে ব্যাক্তি ভালভাবে পবিত্র হল অতঃপর মসজিদে এলো, মনোযোগ দিয়ে খুৎবা শুনতে চুপচাপ বসে রইল, তার জন্য দুই জুমার মধ্যবর্তী এ সাত দিনের সাথে আরও তিনদিন যোগ করে মোট দশ দিনের গুনাহ মাফ করে দেওয়া হয়। পক্ষান্তরে খুৎবার সময় যে ব্যক্তি পাথর, নুড়িকণা বা অন্য কিছু নাড়াচাড়া করল সে যেন অনর্থক কাজ করল।’ (মুসলিমঃ ৮৫৭)

জুমার আদব রক্ষাকারীর দশ দিনের গুনাহ মুছে যায়ঃ রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, জুমার সালাতে তিন ধরনের লোক হাজির হয়। এক ধরনের লোক আছে যারা মসজিদে প্রবেশের পর তামাশা করে, তারা বিনিময়ে তামাশা ছাড়া কিছুই পাবে না। দ্বিতীয় আরেক ধরনের লোক আছে যারা জুমা’য় হাজির হয় সেখানে দু’আ মুনাজাত করে, ফলে আল্লাহ যাকে চান তাকে কিছু দেন আর যাকে ইচ্ছা দেন না।

তৃতীয় প্রকার লোক হল যারা জুমা’য় হাজির হয়, চুপচাপ থাকে, মনোযোগ দিয়ে খুৎবা শোনে, কারও ঘাড় ডিঙ্গিয়ে সামনে আগায় না, কাউকে কষ্ট দেয় না, তার দুই জুমা’র মধ্যবর্তী ৭ দিন সহ আরও ৩ দিন যোগ করে মোট ১০ দিনের গুনাহ খাতা আল্লাহ মাফ করে দেন।” (আবু দাউদঃ ১১১৩)

যে ব্যাক্তি আদব রক্ষা করে জুমার সালাত আদায় করে তার প্রতিটি পদক্ষেপের বিনিময়ে তার জন্য পুরো এক বছরের রোজা পালন এবং রাত জেগে তাহাজ্জুদ পড়ার সওয়াব লিখা হয়।

আউস বিন আউস আস সাকাফী (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, জুমার দিন যে ব্যাক্তি গোসল করায় (অর্থাৎ সহবাস করে, ফলে স্ত্রী ফরজ গোসল করে এবং) নিজেও ফরজ গোসল করে, পূর্বাহ্ণে মসজিদে আগমন করে এবং নিজেও প্রথম ভাগে মসজিদে গমন করে, পায়ে হেঁটে মসজিদে যায় (অর্থাৎ কোন কিছুতে আরোহণ করে নয়), ইমামের কাছাকাছি গিয়ে বসে, মনোযোগ দিয়ে খুৎবা শোনে, কোন কিছু নিয়ে খেল তামাশা করে না; সে ব্যাক্তির প্রতিটি পদক্ষেপের জন্য রয়েছে বছরব্যাপী রোজা পালন ও সারা বছর রাত জেগে ইবাদত করার সমতুল্য সওয়াব।” (মুসনাদে আহমাদঃ ৬৯৫৪, ১৬২১৮)

জুমার সালাত আদায়কারীদের জন্য দুই জুমার মধ্যবর্তী গুনাহের কাফফারা স্বরূপ। রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, “পাঁচ বেলা সালাত আদায়, এক জুমা থেকে পরবর্তী জুমা, এক রমজান থেকে পরবর্তী রমজানের মধ্যবর্তী সময়ে হয়ে যাওয়া সকল (সগীরা) গুনাহের কাফফারা স্বরূপ, এই শর্তে যে, বান্দা কবীরা গুনাহ থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখবে।” (মুসলিমঃ ২৩৩)

জুমার ফজিলতের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিকটি হলো, এই দিনে এমন একটা সময় আছে, যখন মুমিন বান্দা কোনো দোয়া করলে মহান আল্লাহ তাঁর দোয়া কবুল করেন। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে একটি হাদিস বর্ণিত হয়েছে। তিনি বলেছেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, জুমার দিনে একটা এমন সময় আছে, যে সময়ে কোনো মুমিন বান্দা আল্লাহর কাছে ভালো কোনো কিছু প্রার্থনা করলে, অবশ্যই আল্লাহ তাঁকে তা দান করবেন। (সহীহ মুসলিম : ৮৫২, মুসনাদে আহমাদ : ৭১৫১, আস্-সুনানুল কুবরা : ১০২৩৪)

জুমার দিনে দোয়া কবুল হওয়ার সে মহামূল্যবান সময় কোনটা? এ সম্পর্কে ৪৫টা মতামত পাওয়া যায়। তবে সর্বাধিক প্রসিদ্ধ মত হলো, আসরের নামাজের পর থেকে মাগরিব পর্যন্ত সময় দোয়া কবুলের সময়।

হজরত আনাস (রা.) থেকে একটি হাদিস বর্ণিত হয়েছে। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, জুমার দিনের কাঙ্ক্ষিত সময়টা হলো আসরের পর থেকে সূর্যাস্তের পূর্ব পর্যন্ত। (মুসনাদে ইবনে আবি শাইবা : ৫৪৬০ , তিরমিজি : ৪৮৯)

একটি দুরুদ শরিফ আছে জুম্মার দিন আসরের নামাজের পর পড়লে ৮০ বছরের গোনাহ মাফ হয় এবং ৮০ বছর ইবাদতের সওয়াব পাওয়া যায়।

প্রিয় পাঠক এমন অনেক ফজিলত রয়েছে জুম্মার দিনে এই সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ আমল গুলি, স্থানীয় মুফতী সাহেব ইমাম সাহেবের কাছ থেকে জেনে আমল করার চেষ্টা করবো । আল্লাহ পাক সবাইকে তৌফিক দান করুন ।
লেখক মোঃ আবদুল্লাহ আল মামুন বিশিষ্ট লেখক সাংবাদিক ও শিক্ষক মারকাজুত তাহফিয মাদ্রাসা যশোর
০১৬০৯-১৪৫৪৬২

 52 total views,  2 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2018 doinikjonotarkhobor