শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
করোনা প্রতিরোধে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বর্ণপরিচয় এর সচেতনতা। আমতলী থানায় আসামির মৃত্যুঃ সাময়িক বরখাস্ত হওয়া ওসি মনোরঞ্জনের নামে মামলা দায়ের জেলা প্রশাসনের করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর সঙ্গে নিয়ে বিশেষ অভিযান। মানব কল্যাণ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে খাবার সামগ্রী বিতরণ। ধামরাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পৌরসভায় পিপিই বিতরণ ধামরাইয়ে চার হাজার পরিবারের মঝে সাবেক এমপি এম এ মালেক এর খাদ্য সামগ্রী বিতরন বরগুনায় পায়রা নদীর মোহনা থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার ধামরাইয়ে ঢাকা জেলা পুলিশের উদ্যোগে দ্রব্য সামগ্রী বিতরণ। নলছিটিতে করোনা সংকটে ভূমিকা যুবকদের ভোলায় সাংবাদিককে মারধর, সন্ত্রাসী নাবিল হায়দার গ্রেপ্তার ভোলায় করোনা ইউনিটে নেওয়ার সময় রোগীর মৃত্যু ব্যতিক্রমী রাজনীতিক মনীষা চক্রবর্তী ঢাকার ধামরাইয়ে ৫ হাজার পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দিলেন এমপি বেনজির আহম্মেদ সিলেট জেলার গুলচন্দ বাজার নামক জায়গায় চলছে নৌকা বাড়া নামক চাঁদাবাজী কৌষলে হাতিয়ে নিচ্ছেন মোটা অংক্কেট টাকা রাজাপুরে জ্বর আক্রান্তে মৃত্যু, আতংকে জন শূন্য এলাকা নলছিটিতে করোনা সন্দেহে বাড়িতে লাল পতাকা পৃথিবী আজ থমকে দাঁড়িয়েছে,  অনলাইনে একাডেমিক কার্যক্রম চালাবে শাবি ধামরাইয়ে পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুই প্রতারক আটক। ধামরাই ছাত্রলীগের উদ্যোগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ
আমতলীতে পুলিশ পরিদর্শকের কক্ষে যুবকের ঝুলন্ত লাশ

আমতলীতে পুলিশ পরিদর্শকের কক্ষে যুবকের ঝুলন্ত লাশ

বরগুনার আমতলী থানার পুলিশ পরিদর্শকের (তদন্ত) কক্ষ থেকে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শানু হাওলাদার নামের ওই যুবককে হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে আটক করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সকালে থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রির কক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। শানু হাওলাদার আমতলী উপজেলার পশ্চিম কলাগাছিয়া গ্রামের হযরত আলীর ছেলে। শানুর পরিবারের অভিযোগ, বুধবার রাতে হত্যার পর তার লাশ ওই থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি ও ডিউটি অফিসার এএসআই মো. আরিফুর রহমান ঝুলিয়ে রাখেন। এ ঘটনায় বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন বৃহস্পতিবার সকালে অভিযুক্ত দুই পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন। একইসঙ্গে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমেদকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছেন। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেড কোয়ার্টার মহররম ও সহকারী পুলিশ সুপার আমতলী তালতলী সার্কেল মো. রবিউল ইসলাম। শানুর পরিবার জানায়, তাকে আমতলী থানার পুলিশ সোমবার রাতে হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি হিসাবে আটক করে। তাকে আটকে রেখে দফায় দফায় নির্যাতন করে পুলিশ। বুধবার রাতে পুলিশের নির্যাতনে শানু মারা গেলে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তা গলায় রশি লাগিয়ে পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রীর কক্ষে ঝুলিয়ে রাখে। নিহত শানুর স্ত্রী ঝরনা বেগমের অভিযোগ, তার স্বামীকে সোমবার রাতে বাড়ি থেকে আটক করে আমতলী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। ঝরনা থানায় স্বামীর সঙ্গে দেখা করতে গেলে তার কাছে তিন লাখ টাকা দাবি করে পুলিশ। পরে ১০ হাজার টাকা দেন ঝরনা। ঝরনার অভিযোগ, বুধবার রাতে তার স্বামীকে নির্যাতন করে মেরে মনোরঞ্জন মিস্ত্রীর কক্ষে রশি দিয়ে ঝুলিয়ে রাখা হয়। আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

77 total views, 1 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




🏡 আমাদের পরিবারঃ

  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ মোঃআরিফুল ইসলাম
  • মোবাইলঃ ০১৭৭৭৮৮৮৮৯৭, ০১৯৫০৯০৬০৬০
  • ঠিকানাঃ
  • ১০ প্যারারা রোড (সাফারিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ৬ তলা), বরিশাল
  • ইমেইলঃ doinikjonotarkhobor@gmail.com

 

➤সতর্কীকরণ: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© All rights reserved © 2018 doinikjonotarkhobor
Design By Rana