মঙ্গলবার, ০৭ Jul ২০২০, ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
করোনা; উপসর্গে কুমেক হাসপাতালে দুই জনের মৃত্যু করোনাভাইরাস ,এবার পাকিস্তানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আক্রান্ত পরমাণু কেন্দ্রে, আগুনে ‘উল্লেখযোগ্য’ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে: ইরান শিশু হয়রানিমূলক ওয়েবসাইট প্রসঙ্গে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব প্রত্যাখান দক্ষিণ কোরিয়ার শ্রীপুরে, ৪৯ কোটি টাকার সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন সিলেটে অপচিকিৎসায় শিশু মৃত্যুর অভিযোগ দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ৪৪ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২০১ অনলাইন পত্রিকা সম্পাদক শেখ রানা ফেনসিডিল সহ আটক বরিশাল বিভাগে, নতুন করে ১২৬ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ৩৪১৮ পিরোজপুরে, নতুন করে একদিনে সর্বোচ্চ ৫০ জনের করোনা শনাক্ত বিপদসীমার, ওপরে কীর্তনখোলা নদীর পানি পোষা প্রাণী, থেকে করোনা ছড়ায় না: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মুন্সীগঞ্জের, পদ্মার পানি ঢুকে শতাধিক বাড়ি, ও সড়ক প্লাবিত মাঝ আকাশে, মুখোমুখি সংঘর্ষ আমেরিকার লেকে ভেঙে পড়ল দুটি বিমান প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা বিনিময় ৩৮ তম বিসিএস কেশবপুর ১১জন মেধাবীদের যশোরে শুদ্ধাচার চর্চায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন ইউএনও তানিয়া আফরোজ রোববারে যশোরে করোনা আক্রান্তদের তথ্য দিতে পারেনি ৩৮ তম বিসিএসে কেশবপুর উপজেলার ১১ , জন মেধাবী যশোর করোনায় আক্রান্ত হয়ে ব্যাবসায়ীর মৃত্যু নীলফামারী পৌরসভার মেয়র করোনায় আক্রান্ত
সিলেট জেলার গুলচন্দ বাজার নামক জায়গায় চলছে নৌকা বাড়া নামক চাঁদাবাজী কৌষলে হাতিয়ে নিচ্ছেন মোটা অংক্কেট টাকা

সিলেট জেলার গুলচন্দ বাজার নামক জায়গায় চলছে নৌকা বাড়া নামক চাঁদাবাজী কৌষলে হাতিয়ে নিচ্ছেন মোটা অংক্কেট টাকা

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেট জেলা সদর উপজেলা জালালাবাদ থানা ৭ নং মোগলর গাঁও ইউনিয়ন করিমগজ্ঞ বাজার = গুলচন্দ বাজার = গুলচন্দ বাজার = করিমগজ্ঞ বাজার ৳৳ চলছে নৌকা বাড়ার নামে জম জমাট চাঁদাবাজী এই জায়গায় ছিল প্রথমে নৌকা বাড়া এপার ওপার মানে আশা যাওয়া বাড়া ২ টাকা স্থায়ী ভাবে ২ টাকা ই বাড়া সেই জায়গায় এখন হচ্ছে ৫ টাকা বাড়া সেই সাথে রাত্র ৮ টা হয়ে গেলে সেই জায়গায় নৌকা বাড়া হয়ে পরে ১০ টাকা + যত রাত্র হবে ততই বারতে তাকে তাদের এই চাঁদাবাজী মানে যত রাত হবে তাদের বাড়া + হতেই থাকে। এক সময় + ( বাড়া বাড়তে বাড়তে ) হয়ে যাচ্ছে লাগাম ছারা একটু বেশি রাত্র হলেই যদি কোনো লোক বিপদে পরেই একটু রাত্রে করে ফিরে শুরু হয় তার সাথে ভয়ংকর ব্যাবহার সে যদি পারি দেওয়ার কথা বলে থার কাছ থেকে চাওয়া হয় ২০০,৩০০,৫০০, বড় অংক্কের টাকা যদি সেই ব্যাক্তি টাকা দিতে অসিক্ষার করে তাকে বলা হয় তা হলে ঐ পান্তে জাওয়ার প্রয়োজন নাই এখানেই বসে থাকেন। এই নিয়ে ২ পার্ন্তের সাধারন জনগন হচ্ছে বিভ্রান্তিত হচ্ছেন নির্যাতিত। যদি কখন বলা হয় তাদের কে এখন আমার ভাংতি টাকা নাই পরে দিচ্ছি তারা এটা মেনে নেন না আবার বলে তা হলে বাড়ি থেকে কাওকে টাকা নিয়ে আশার কথা বলেন। অথবা বাসায় খবর পাটান যে আপনি এখানে আছেন নৌকা বাড়া নিয়ে আশার জন্য। এই দিকে পরছে না কোনো প্রশাসনের চোখ এই দিকে প্রশাসনের দৃষ্টি আক্রষন করছি করছি উপজেলা নির্বাহি অফিসারের দৃষ্টি আক্রষন সেই সাথে স্থানিয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান স্থানিও ওয়ার্ড মেম্বার ও স্থানিয় মুরুব্বী গনের বিশেষ করে প্রশাসনের দৃষ্টি আক্রষন করছি

 268 total views,  21 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2018 doinikjonotarkhobor