বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ০৩:২৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
সীমান্তে উত্তেজনা : যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে বললেন চীনা প্রেসিডেন্ট করোনার ভ্যাকসিন এ বছরই: নোভাভ্যাক্স মানিকগঞ্জে সাংবাদিকসহ ৭ জন করোনায় আক্রান্ত আইনজীবী আব্দুর রেজাক খান সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত আম্পানের প্রভাব না কাটতেই কালবৈশাখী ঝড়ের হানা করোনা রোগীদের হাসপাতালে আলাদা চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ করোনায় আক্রান্ত হয়ে কাউন্সিলর মাজহারের মৃত্যু ঈদ আড্ডায় ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী ৫ তারকা। করোনা পজিটিভ শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজের লিফট চালক ও তার ছেলে ! এস আলম গ্রুপ!! #দেশের_শীর্ষ_ধনীদের_মধ্যে_অন্যতম। নীলফামারীতে ঈদে সরকারি শিশু পরিবারের এতিম শিশুদের খোঁজখবর নিলেন জেলা প্রশাসক চুয়াডাঙ্গায় একই পরিবারের চারটি শিশুকে উদ্ধার ! ঘুমন্ত মা ও দুই মেয়েকে এসিড দিয়ে ঝলসে দিল দুর্বৃত্তরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চেনা পার্কের অচেনা দৃশ্য ১৪ দিনে করোনা জয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তার করোনা সংকটে সকল সহযোগিতা নিয়ে জনগণের পাশে আছে সরকার – পংকজ নাথ এমপি! করোনাভাইরাস রুখতে পারে গাঁজা, দাবি বিজ্ঞানীদের সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সংকেত, হতে পারে জলোচ্ছ্বাস নীলফামারীতে নতুন করে আরো ৫ জনের করোনা শনাক্ত । চুয়াডাঙ্গায় মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদান প্রদান
বিচার বিভাগের নতুন অধ্যায়ের যাত্রা শুরু

বিচার বিভাগের নতুন অধ্যায়ের যাত্রা শুরু

করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধে সরকার ঘোষিত ছুটি ও অবকাশকালে শারীরিক উপস্থিতি ছাড়া তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে আদালতের বিচার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে দেশের বিচার বিভাগ নতুন এক অধ্যায়ের যাত্রা শুরু করেছে, যা দেশের বিচার বিভাগের ইতিহাসে প্রথমও।

ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে মামলা লড়ার জন্য ই-মেইলের মাধ্যমে আজ হাইকোর্টে আবেদন দাখিল করছেন আইনজীবীরা। আজ সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত হাইকোর্টের পৃথক দুটি বেঞ্চে ১৭ টি আবেদন (জামিন আবেদন ও একটি রিট) জমা পড়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রগুলো জানিয়েছে।

এর মধ্যে বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে একটি রিট এবং বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে ১৬ টি জামিন আবেদন ই-মেইলের মাধ্যমে পাঠিয়েছেন সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা। এর সঙ্গে আবেদন করার কার্যকারনও উল্লেখ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। অবশ্য বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনো আবেদন জমা পড়েনি বলে জানা গেছে।

আদালত সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, আবেদনের কার্যকারন যাচাইয়ের পর তা শুনানির জন্য নির্ধারণ করা হবে। আবেদন শুনানি গ্রহণের যোগ্য হলে সংশ্লিষ্ট আইনজীবীকে সময় জানিয়ে দিয়ে একটি লিঙ্ক পাঠিয়ে দেওয়া হবে। আর রাষ্ট্রপক্ষকে ইমেইলে ওই আবেদনের অনুলিপি পাঠানোর পাশাপাশি একটি লিঙ্ক পাঠিয়ে দেওয়া হবে। ওই লিঙ্কের মাধ্যমে পক্ষগুলো ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে মামলার শুনানিতে অংশ নেবেন। চলতি সপ্তাহে আবেদনগুলোর ওপর শুনানি হতে পারে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো ধারণা করছে।

এ দিকে এটুআই ও ইউএনডিপির সহযোগিতায় আদালতের বেঞ্চ কর্মকর্তাসহ সংশ্লিস্টদের জন্য আগামীকাল মঙ্গলবার প্রশিক্ষনের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান।

এর আগে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে মামলা শুনানি ও নিষ্পত্তির জন্য গতকাল রোববার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন হাইকোর্ট বিভাগের ওই তিনটি বেঞ্চ গঠন করে দেন। একইসঙ্গে চেম্বার বিচারপতি হিসেবে আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নূরুজ্জামানকে মনোনীত করেন। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে শুধু ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে ১৪ ও ২০ মে সকাল সাড়ে ১১ টা হতে এই চেম্বার কোর্টে শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

আর অধস্তন আদালতে শুধু জামিন সংক্রান্ত বিষয়সমূহ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে নিষ্পত্তির উদ্দেশ্যে আদালতের কার্যক্রম পরিচালনা জন্য গতকাল রোববার নির্দেশ দেওয়া হয়। এ ছাড়া হাইকোর্টের ওই তিনটি বেঞ্চে আবেদন করার জন্য ইমেইল ঠিকানা, আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের ক্ষেত্রে ভার্চুয়াল কোর্টের জন্য পৃথক প্রাকটিস ডাইরেকশন, আইনজীবীদের জন্য আমার আদালত (ভার্চুয়াল কোর্টরুম ব্যবহার) ম্যানুয়াল, অধস্তন আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে শুধুমাত্র জামিন সংক্রান্ত বিষয়াদি ভার্চুয়াল শুনানির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করতে বিশেষ প্রাকটিস নির্দেশনা গতকাল রোববার সুপ্রিম কোর্টের ওয়েব সাইটে প্রকাশ করা হয়। প্রাকটিস ডাইরেকশনসহ ম্যানুয়ালে ব্যবহারিক দিক-নির্দেশনা রয়েছে। এ ছাড়া চেম্বার কোর্টের বিচারকার্য পরিচালনার জন্য ই-মেইল ঠিকানা সম্পর্কিত বিজ্ঞপ্তি আজ সুপ্রিম কোর্টের ওয়েব সাইটে প্রকাশ করা হয়।

ভার্চুয়াল মাধ্যমে কার্যক্রম সম্পর্কে সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে শুনানির মাধ্যমে আজ রোববার কুমিল্লার জেলা ও দায়রা জজ মো. আতাবুল্লাহ একটি মামলায় একজনের জামিন মঞ্জুর করেছেন। এই আদালতে আগামীকাল মঙ্গলবার বেশকিছু মামলা শুনানির জন্য নির্ধারিত আছে। এ ছাড়া ঢাকা ও ঢাকার বাইরের আদালতেও ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে বেশকিছু মামলা মঙ্গলবার শুনানির জন্য নির্ধারিত আছে।

হালদায় ডলফিন হত্যা রোধে রিট:

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র রক্ষায় চট্টগ্রামের হালদা নদীতে ডলফিন হত্যা রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নির্দেশনা চেয়ে ভার্চুয়াল মাধ্যমে শুনানির জন্য হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী। ভার্চুয়াল মাধ্যম ব্যবহার করে দাখিল করা প্রথম রিট এটি।

আজ সোমবার ই-মেইলের মাধ্যমে বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চে ওই রিটটি জমা দেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এম আব্দুল কাইয়ুম। হালদা নদীতে ডলফিন হত্যা নিয়ে ৮ মে ও ১০ মে ইংরেজি দৈনিক দ্যা ডেইলি স্টারের অনলাইন সংস্করনে পৃথক প্রতিবেদন ছাপা হয়।

এই প্রতিবেদন দুটি যুক্ত করে ওই রিটটি করা হয়েছে জানান আইনজীবী আব্দুল কাইয়ূম। রিট আবেদনকারী এই আইনজীবী প্রথম আলোকে বলেন, রিটে হালদা নদীতে ডলফিন হত্যা রোধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না এবং ডলফিন হত্যা রোধে কেন প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হবে না এ মর্মে রুল চাওয়া হয়েছে। মৎস্য ও পশুসম্পদ সচিব, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক ও চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে রিটে বিবাদী করা হয়েছে। রিটের সঙ্গে এর যৌক্তিকতার বিষয়টিও তুলে ধরা হয়েছে।

রিটে ১০ মে প্রকাশিত প্রতিবেদনের কিছু অংশ তুলে ধরা হয়েছে। এর ভাষ্য, ‘……লকডাউন আর শাটডাউন পৃথিবীর নানা অংশের বন্যপ্রাণী ও নদী-সমুদ্রের স্তন্যপায়ী প্রাণীদের জন্য আশীর্বাদ হয়ে এলেও মানুষের নিষ্ঠুরতা থেকে মুক্তি পাচ্ছে না গাঙ্গেয় এ ডলফিন। অবৈধ জালের শিকার হচ্ছে মা মাছও। শনিবারও হালদা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ইঞ্জিন বোটের আঘাতে রক্তাক্ত হয়েছে ১৩ কেজি ওজনের একটি মা মাছ। গাঙ্গেয় এ ডলফিন (গাঙ্গেটিকা প্লাটানিস্টা) দক্ষিণ এশিয়ার নদীগুলোতে একটি বিপন্ন প্রজাতি। প্রকৃতি সংরক্ষণের জোট ‘আইইউসিএন’ এ প্রজাতিকে মহাবিপন্ন হিসেবে লাল ক্যাটাগরিতে তালিকাভুক্ত করেছে ২০১২ সালে।

বিশেষ জজ, মানবপাচার দমন ও সাইবার ট্রাইব্যুনাল জামিন শুনবেন:

এ দিকে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে জরুরি জামিন সংক্রান্ত বিষয়সমূহ নিষ্পত্তি করার উদ্দেশ্যে ছুটিকালীন বিভাগীয় বিশেষ জজ, সাইবার ট্রাইব্যুনাল ও মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম পরিচালনা করা প্রসঙ্গে বিজ্ঞপ্তি সুপ্রিম কোর্টের ওয়েব সাইটে আজ প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রধান বিচারপতির আদেশক্রমে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্টার জেনারেল মো. আলী আকবর স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তির ভাষ্য, নির্দেশিত হয়ে জানানো যাচ্ছে যে, দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস রোগের সংক্রমণ মোকাবেলায় এবং এর ব্যাপক বিস্তার রোধ কল্পে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আগামী ১৬মে পর্যন্ত সকল আদালতে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ছুটির সময়ে (সাপ্তাহিক ও সরকারি বর্ষপঞ্জিতে ঘোষিত ছুটি ছাড়া) বিভাগীয় বিশেষ জজ, সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক ও মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারককে “আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ ২০২০ এবং এই আদালতের জারি করা “বিশেষ প্রাকটিস নির্দেশনা” অনুসরণ করে শুধু জামিন সংক্রান্ত বিষয় সমূহ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করার উদ্দেশ্যে আদালতের কার্যক্রম পরিচালনা জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো।

এই আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

 45 total views,  1 views today

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




🏡 আমাদের পরিবারঃ

  • প্রকাশক ও সম্পাদকঃ মোঃআরিফুল ইসলাম
  • মোবাইলঃ ০১৭৭৭৮৮৮৮৯৭, ০১৯৫০৯০৬০৬০
  • ঠিকানাঃ
  • ১০ প্যারারা রোড (সাফারিয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ৬ তলা), বরিশাল
  • ইমেইলঃ doinikjonotarkhobor@gmail.com

 

➤সতর্কীকরণ: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© All rights reserved © 2018 doinikjonotarkhobor